রবিবার, ১২ এপ্রিল, ২০২০

রুমা ঘোষের অণুগল্প : তবু কেন...

-- হ‍্যালো, নিলয় বলছ ?
-- হ্যাঁ, বলো ম‍্যাডাম
-- খুব কি ব‍্যস্ত আছো ?
-- না, কি ব‍্যাপার ?
-- computer hang হয়ে গেছে
-- ঠিক আছে shut down করে দাও
-- কেন ?
-- memory full হয়ে  গেছে বোধহয় । আমি পরে clear করে দেব।
-- খুব জরুরী কাজ আছে
-- আমি কি আসবো ?
-- এলে ভালো হয়

ঘড়িতে তখন বেলা বারোটা বেজে ১০ মিনিট। আজকের দিনটার একটা আলাদা বিশেষত্ব আছে। সকাল থেকেই একবুক অভিমান নিয়ে কালো মেঘগুলো আনমনে ভেসে যাচ্ছে। মাঝে মাঝে বৃষ্টিগুলো পৃথিবীর বুক ছুঁয়ে যাচ্ছে। শিরশিরে হাওয়া মনটা উথাল পাথাল করে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। computer room এর AC টা বন্ধ করে রজ্ঞা জানালাটা খুলে দিয়ে computer screen এ চোখ রেখেছে ।

নিলয় আর রজ্ঞা দুজনেই মাল্টি ন‍্যাশনাল কোম্পানীর এক্সুকিউটিভ অফিসার । দুজনেই নিজেদের স্বকীয়তায় অন‍্যান‍্য অফিসারদের থেকে কয়েক ধাপ এগিয়ে। কোম্পানীর যে কোন গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে দুজনেরই ডাক পড়ে। অথচ ওদের দুজনের মধ্যে পেশাগত কোন রেষারেষি নেই, উপরন্তু একটা সখ‍্যতা লক্ষ‍্য করা যায়। দুজনেই ভরপুর সংসারের ভালবাসায় পরিপূর্ণ।
এই ধরনের সখ‍্যতায় অফিসে কানাঘুষো হলেও ওদের ব‍্যক্তিত্বের জন‍্য কেউ কোনদিন ওদের ব‍্যাপারে মাথা ঘামায়নি। যেন এটাই স্বাভাবিক।

--বলো ম‍্যাডাম এই সহজ ব‍্যাপারটা পারছো না?
-- না পারছি না, তুমি একটু দেখিয়ে দাও ।
পাশের চেয়ারটা টেনে নিলয় রজ্ঞার পাশে বসল।
key-board এর উপর হাত নাড়তে নাড়তে screen এ চোখ রেখেছে। function টা শেষ করেই বলে উঠল
-- এই সামান‍্য ব‍্যাপারটা পারলে না তুমি ?
-- হি হি , কি করেছ? কিছুই তো হয়নি। যেমন ছিল তেমনই আছে।
-- ওহোঃ, তাই তো। এখানে এসেই সব ওলটপালট হয়ে গেল। আচ্ছা আমি আবার দেখছি।

নিলয় key-boarder key গুলো নাড়াচাড়া করছে । রজ্ঞার হাতটা key-board এ রাখা, অথচ কারুর আঙুল স্পর্শ করছে না । রজ্ঞার চোখ screen এ আটকে আছে ।

আচমকা জানলা দিয়ে বুক হিম করা একটা ঠান্ডা হাওয়া সমস্ত ঘরটাকে ছুঁয়ে গেল । চারিদিকে শিউলির সুবাস । রজ্ঞার মন চকিতে computer এর screen থেকে জানলা, জানলা থেকে আকাশ, আকাশ থেকে তেপান্তরের মাঠ ছাড়িয়ে অচেনার আনন্দে ভাঙতে ভাঙতে হু হু করে চলতে থাকে । চোখদুটো key-board এ নিলয়ের আঙুলে আটকে যায় । একটা অদ্ভুত ভাললাগা, অচেনা শির-শিরভাব সারাটা দেহ মন জুরে । রজ্ঞার মনের ভিতরের মন চিৎকার করে ওঠে ,"তুমি কি বুঝতে পারছো নিলয় আমার অসাড়তা , আমার প্রসন্নতা । না না আঙুলে আঙুল জড়িয়ো না , স্পর্শ নয় , কোনো স্পর্শ নয়। কোনদিকে মন নেই আমার। তোমার key-board এর শব্দগুলো আমার হৃদয়ে টুংটাং করছে । একটা চিনচিনে ভাললাগা তোমাকে ঘিরে "।

-- ম‍্যাডাম , স‍্যার আপনাকে ডাকছেন।

চকিতে সম্বিত ফিরে পায় রজ্ঞা ।সমস্ত শরীর জুড়ে একটা শীতশীত ভাব । কতক্ষণ ? হয়তো এক মিনিট , অথবা দুই বড়জোর তিন মিনিট । কিন্তু মনে হয় অনন্ত যুগ । পিওনের ডাকে সাড়া দেয় রজ্ঞা ,
-- যাও আসছি।

চেয়ার ছেড়ে নিঃশব্দে উঠে দাঁড়ায় রজ্ঞা ।একদিকে ভীষন ভালবাসা-ভাললাগার মিশ্রণ, অন‍্যদিকে একটা অপরাধ বোধ । জড়ানো পায়ে দরজার দিকে এগুতে এগুতে স্বগোতক্তি করে রজ্ঞা ,"শুধু আমারই কেন এটা হল ? নিলয় তোমার কি কিছুই হয়নি ?এটা কি অপরাধ না সহজবোধ‍্যতা ?"
দরজার হাতলে হাত দিয়ে খোলার সময় ভেসে আসে নিলয়ের কন্ঠস্বর ,
-- স‍্যার আর ডাকার সময় পেলেন না , ধুত্তোর।
" ওই তো , ওই তো নিলয় তোমার মনের কথা । আমি একা নই , আমরা সবাই ।"
রজ্ঞা আপনমনে ভাবে আর বিড়বিড় করে ,
" আমরা সবাই তো পরিপূর্ণ , তবু কেন এমন হয় মাঝেমাঝে ................"


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন