সোমবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২০

অমরকুমার পালের অণুগল্প : ডাস্ট অ্যালার্জি





গেদি আটবছর ধরে বাড়ি বাড়ি উঠানা কাজ করে । একটি ব্রাহ্মণ মাস্টারের বাড়ি গতকাল সে নতুন পেয়েছে । ব্রাহ্মণ বাড়িতে কাজ তার এই প্রথম ।
    প্রথম দিন । সংকুচিত ভঙ্গিতে সে সকাল আটটায় মাস্টারের বাড়িতে প্রবেশ করল । ছোটজাতের গেদি ছোঁয়ানাড়ার ভয় নিয়েই সতর্কিতভাবে একঝুরি বাসন মাজল ঘষে ঘষে । একটি পোড়া কড়াইয়ের দাগ, যা প্রায় অসম্ভব ছিল তোলা, তাও লেবুর রস ও সাবান দিয়ে তুলে ফেলল । প্রথম দিনেই কর্তাগিন্নির মনজয় করতে হবে তাকে । কড়াই দেখে গিন্নি গদগদভাবে বলল,
‘আমি তো ভেবেছিলাম কোনোদিন এই দাগ উঠবে না । তুই তো ভালই কাজ জানিস গেদি ।’
‘বোদি কাম কোরে প্যাটের ভাত জোগাড় করি, ছাওয়ালদের পড়াই, সোয়ামির সোহাগ ধোরে রাখি । এইগুলা কাম না জানলে আমাদের চলে, বলেন ?’
পূজার কাঁসার বাসন মাজতে গিয়ে গেদি দেখল সব তামাটে হয়ে গেছে । সে বলল,
‘পিরতলায় সুবোধ কাকার দকান্যা একটা পাউডার পাওয়া যায় । মাস্টারমশাইকে বোলবেন আনতে । একবার ঘষা দিলেই আয়নার মতন চকচক করবে কাঁসার বাসুন ।’
‘ভালোই তো জানিস । আচ্ছা আগে চা খেয়ে নে তারপর ঘরগুলো ভালো করে ঝাড় দিয়ে ফিনাইল দিয়ে মুছে দিস ।’ প্রশংসা ও সহানুভূতির সুরে বললেন গিন্নি ।
চা পানের পর গেদি ঝাড় দিতে শুরু করল । বারান্দা ও ডাইনিং ঝাড় দিয়ে মাস্টারমশাই যে ঘরে বিছানায় বসে পেপার পড়ছেন সেই ঘরে ঢুকল । খাটের তলে প্রায় অর্ধেক শরীর প্রবেশ করিয়ে প্রচুর আবর্জনা বের করল সে । সেগুলি ঝাড় দিয়ে বাইরে বের করার সময় হঠাৎ সে অস্বাভাবিকভাবে চিৎকার করে উঠল ‘বৌদি বৌদি’ বলে । গিন্নি আপত্তিজনক কিছু ঘটেছে মনে করে রান্না ঘর থেকে দৌড়ে ঘরে এল ।
‘কি হয়েছে, কি !’
‘আমরা গরিব বোলে কি মানুষ না বৌদি । আমাদের কি শনমান নাই ?’
‘কি হয়েছে সেটা তো আগে বল গেদি ।’ হাঁপাতে হাঁপাতে বৌদি বলে ।
‘মাস্টারমশাই আমাক দেখি জুদি নাক ধরে তাইলে আমি কাজ কোরতে পারব না । বোলে দিলাম ।’
বলেই ঝাড়ু ফেলে বৌদি কিছু বুঝে ওঠার আগেই গেদি রওনা দিল । গিন্নি হতভম্ব হয়ে দাঁড়িয়ে রইলে স্ত্রীকে দেখে মাস্টারমশাই বললেন,
‘অণু, এখন আর ডেকো না থাক । বিকেলে ওর বাড়ি গিয়ে বুঝিয়ে বলব আমরা । মান্ধাতার আমল থেকে আমরা নাকচাপা দিয়ে এসেছি দলিতদের দেখে । তাই আমার ডাস্ট এলার্জি আছে বললেও আজ বিশ্বাস করানো শক্ত ওদের । আমাদের আরও আন্তরিক আরও সাবধানী হতে হবে ।’        
                         

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন