শনিবার, ৪ জানুয়ারী, ২০২০

মৌমিতা ঘোষালের অণুগল্প : শেষের ঠিক আগে

মৌমিতা ঘোষাল
শেষের ঠিক আগে


ছোট্ট স্টেশন। ভিড় হয় না। ধীরে ধীরে গিয়ে বসলাম প্লাটফর্মের একটু দূরের ছোট বেঞ্চিতে। ভাবছিলাম। এই নিয়ে তিন তিনবার। অনার্সটা তো আগেই গেছে। বাবা তো বলেই দিয়েছে, মরে গেলেও আর পাস হবে না। বন্ধুরাও সব চাকরি করছে। ওপাড়ার সনু আবার নাকি আমেরিকাও যাবে নাকি! আর আমি জাস্ট একটা ফেলিওর। হ্যাঁ, এই ট্রেনের সামনেই আমি শেষ হয়ে যাব। হাতে আর মাত্র দশ মিনিট, লেট করলে বিশও হতে পারে। অপেক্ষা মাত্র কিছুক্ষণ। সামনের মাঠ, ছাগল চরছে, বাচ্চা ছেলেটার কোলে একটা ছাগল ছানা। মাঠের মাঝখানে লোহার রাস্তা দিয়ে আসবে ট্রেন। হুইশল পড়ল। সময় শেষ এবার, বুকটা কেঁপে উঠল। ঠিক যেমন পরীক্ষার লাস্ট ঘন্টার সময় হয়, তেমনটা।প্লাটফর্মে আসতে বেশি সময়ও লাগলো না চারপাশটা আর একবার ভালো করে দেখলাম, এটাই শেষবার। আর কিছু দেখার সুযোগ পাব না। দম বন্ধ লাগছিল খুব। ট্রেনটা স্টার্ট নিয়ে স্পিড ধরতেই চোখ বন্ধ হয়ে গেল। ধপ্ করে বসে পড়েছি মাটিতে। নিজেকে শেষ করা কি কঠিন! তালবিহীন আমার হুঁশ হল কান্নার শব্দে। বাচ্চার কান্না। কোন সময়ে হাত ফসকে ছাগলছানাটা এসে পড়েছিল লাইনে। মায়ের কথা মনে পড়ল একবার। বাবার সাথে ঝগড়া করে বেরিয়ে আসার সময় মা দরজার আড়ালে দাঁড়িয়ে কাঁদছিল। এখনও অপেক্ষায় আছে বোধহয়। নাহ, বাড়ি ফিরতেই হবে এবার।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন